সাকিব-তামিমের ‘হাফসেঞ্চুরি’

কাছাকাছি সময় সাদা পোশাকে অভিষেক, এখনও খেলে যাচ্ছেন এক সাথে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের দুই স্তম্ভ সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। ২০০৭ সালের ১৮ মে সাকিব ও ২০০৮ সালের চার জানুয়ারি তামিমের অভিষেক হয় টেস্টে।

লম্বা সময় ধরে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলে যাওয়া ৪৬তম টেস্ট ক্যাপের মালিক সাকিব ও ৫০তম টেস্ট ক্যাপের মালিক তামিম আজ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার সাথে সাথেই ছুঁয়ে ফেলেছেন এক মাইলফলক।

সাদা পোশাকের শুরুটা কিছুটা আগে-পরে হলেও দুজন একই সঙ্গে খেলতে যাচ্ছেন ৫০তম টেস্ট ম্যাচ। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচেই সাকিব ও তামিমের টেস্টের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ হলো।

২০০০ সালে টেস্ট ক্রিকেট যাত্রা শুরু করেও বাংলাদেশ টেস্ট দল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের ১০১তম টেস্টটি খেলতে নেমেছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের হিসেবে এটি তেমন বড় মাইলফলক না হলেও বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রেক্ষাপটে পঞ্চাশতম টেস্ট খেলা অনেকটা বড় অর্জন।

৪৯ ম্যাচে ৪৬ টেস্ট একসঙ্গে খেলেছেন সাকিব ও তামিম। তবে একসঙ্গে ব্যাটিং করেছেন মাত্র চার ইনিংস, যেখানে তাদের মোট রান ২১৬। বাংলাদেশের হয়ে বর্তমানে সব ফরম্যাট মিলিয়ে সর্বোচ্চ রানের মালিক তামিম। তার টেস্ট রানের সংখ্যা তিন হাজার ৬৭৭। আর দুইয়ে থাকা সাকিবের রান তিন হাজার ৪৭৯। পাশপাশি তিনি ১৭৬ উইকেটও আছে সাকিবের নামের পাশে।

বাংলাদেশের হয়ে সবথেকে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলা ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল। তিনি মোট ৬১টি টেস্ট ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তবে ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে নিষিদ্ধ থাকায় এই সংখ্যা আর বাড়াতে পারেননি প্রতিভাবান এই ব্যাটসম্যান। তারপরই আছেন বাংলাদেশ দলের বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। তার খেলা ম্যাচের সংখ্যা ৫৪। এছাড়াও সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার নিজের পঞ্চাশতম টেস্ট খেলেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছিলেন।

 

আপনার মন্তব্য দিন

শেয়ার