রবিবার রাত সাড়ে নটার পরে ভুলেও করবেন না এই ৫টি কাজ। মারাত্মক বিপদের ভয়

সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিন। তাই সকাল সকাল উঠতে হবে। সঠিক সময়ে কাজে যোগ দিতে হবে। আবার একটা গোটা সপ্তাহ ডুব দিতে হবে কাজের জগতে। তার আগে ছুটির দিনে যা খুশি করুন কিন্তু রাত সাড়ে ন’টা বেজে গেলেই সাবধান হতে হবে। এমনটাই বলছেন গবেষকরা।
ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্লিপ অ্যান্ড নিউরোম্যানেজিং বিভাগের প্রধান ডক্টর ম্যাট ওয়াকারের বক্তব্য, মানুষের ঘুমের বিভিন্ন স্তর রয়েছে। এবং সেই স্তর ঘুমনোর সময়ের উপরে নির্ভর করে। সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনের জন্য দরকার পর্যাপ্ত ভাল ঘুম, সাধরণ ঘুম নয়। তাই সকাল ৬টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে উঠতে হলে রাত ১০টার মধ্যে শুয়ে পড়া দরকার। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঘুমিয়ে পড়াও দরকার। তাই এমন পাঁচটি কাজ করতে বারণ করছেন যা ভালো ঘুমের পক্ষে বাধা হতে পারে। ভালো ঘুমের জন্য কমপক্ষে আধ ঘণ্টার প্রস্তুতিও দরকার বলে মনে করেন গবেষকরা। তাই এই পাঁচটি কাজ রাত সাড়ে ন’টার পরে করাই উচিত নয়। বিশেষ করে রবিবার।
১। সারা দিন অনেক আনন্দ হয়েছে। বাকিটা পরের সপ্তাহের জন্য তোলা থাক। বেশি রাত পর্যন্ত টিভি দেখবেন না। তাই সাড়ে ন’টার পরে কোনও অনুষ্ঠান দেখা শুরু করবেন না। সেটায় একবার বুঁদ হয়ে গেলে ঘুমের ক্ষতি হবে।
২। সারে ন’টা বেজে গেলে কোনও খাবার খাওয়াই উচিত নয়। গুরুপাক খাবার তো একেবারেই নয়। রবিবার সাধারণত দিনের খাওয়া একটু বেশি হয়ে যায়। অনেক সময়ে দেরিতেও হয়। তাই রাতে হালকা খাবার খাওয়াই ভাল। আর সেটাও সাড়ে ন’টার পরে নয়।
৩। বিছানায় মোবাইল ঘাঁটবেন না। সেটা বন্ধ করুন সাড়ে ন’টা থেকেই। কারণ, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপে একবার ঢুকে পড়লে সেটা মাথায় ঢুকে যায়। অনেক সময়ে আড্ডা জমে ওঠে। আবার অপ্রত্যাশিত কোনও কিছু আপনার মাথা গরম করে দিতে পারে। যেটা ভাল ঘুমের পক্ষে ক্ষতিকারক।
৪। রবিবার মদ্যপান করতে হলে তা আগে আগে শেষ করুন। রাত সাড়ে ন’টার পরে কোনও ভাবেই মদ্যপান করবেন না।
৫। খাবার পরে দেড় ঘণ্টা সময় না দিয়ে বিছানায় যাবেন না। হালকা হাঁটা চলা করুন। গান শুনন। কিন্তু কোনও ভাবেই সাংসারিক হিসেব নিয়ে বসবেন না। দাম্পত্য কলহ এড়িয়ে চলুন। মনে রাখবেন রবিবারের রাত মানে গোটা একটি সপ্তাহের জন্য শক্তি সঞ্চয়ের সময়।

আপনার মন্তব্য দিন

শেয়ার