বর্তমানে জনপ্রিয়তায় হাসিনা ৭২, খালেদা ২৩

শেখ হাসিনাই বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। জনপ্রিয়তায় তার আশপাশে কেউ নেই। দেশের ৭২ ভাগ মানুষ মনে করেন, শেখ হাসিনাই বাংলাদেশের যোগ্যতম নেতা। ‘ইন্টারন্যাশনাল পলিটিক্যাল রিসার্চ সেন্টার’ (আইপিআরসি) এর এক জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে। জার্মান ভিত্তিক এই সংগঠনটি রাজনীতিতে মানুষের অংশগ্রহণ এবং ভূমিকা বৃদ্ধির জন্য গবেষণা করে।

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জন্য তারা চলতি বছরের প্রথম দিক থেকে দেশব্যাপী এই জরিপ শুরু করে বলে জানা গেছে। অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের রূপকল্প নির্ধারণের জন্যই এই জরিপ করা হয়। ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা ছাড়াও দলীয় জনপ্রিয়তা সম্পর্কেও জরিপে প্রশ্ন ছিল। দেশের বিভিন্ন স্থানে চার হাজার মানুষের ওপর এই জরিপ চালানো হয়। জরিপে ৫২ ভাগ পুরুষ এবং ৪৮ ভাগ নারী অংশগ্রহণ করেন।

জরিপে প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায়, ব্যক্তিগত পর্যায়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনীতিবীদ হলেন শেখ হাসিনা। ৭২ ভাগ মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল। ২৩ ভাগ মানুষ বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি আস্থাশীল আর এরশাদের প্রতি আস্থাশীল মাত্র ৩ ভাগ। ২ ভাগ মানুষ জানিয়েছেন, তারা কারও প্রতিই আস্থাশীল নন।

জরিপে ৮১ ভাগ উত্তরদাতা বলেছেন, তারা বিশ্বাস করেন শেখ হাসিনা সৎ। ৭৩ ভাগ উত্তর দাতা বলেছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে। ৪৩ ভাগ উত্তরদাতা মনে করেন, শেখ হাসিনা সন্ত্রাস দমনসহ আইন শৃংখলার উন্নতিতে সফল। ২১ ভাগ উত্তরদাতা মনে করেন দুর্নীতি দমনে তিনি সফল।

অন্যদিকে, মাত্র ১১ ভাগ উত্তরদাতা মনে করেন বেগম জিয়া সৎ। ২৬ ভাগ মনে করেন বেগম জিয়ার আমলে সবচেয়ে বেশি কাজ হয়েছে। ৯ ভাগ মনে করেন বেগম জিয়া সন্ত্রাস দমনসহ আইন শৃংখলা উন্নয়নে সফল। মাত্র ৪ ভাগ মনে করে দুর্নীতি দমনে বেগম জিয়া সফল ছিলেন।

জরিপে ৯১ ভাগ উত্তরদাতা মনে করেন, শেখ হাসিনা জনগণের জন্য ভাবেন। ৭ ভাগ মনে করেন বেগম জিয়া জনগণের জন্য ভাবেন। গত জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত ৮টি বিভাগীয় শহরে এই জরিপ পরিচালিত হয়েছে। জরিপের তথ্যগুলো একত্রিত করে জুলাই মাসের শেষ দিকে, আইপিআরসি জরিপের তথ্য ব্রাসেলসে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদর দপ্তরে জমা দেওয়ার কথা ছিল বলে জানা গেছে।

আপনার মন্তব্য দিন

শেয়ার