দোকানের মতন সমুচা রেসিপি

আজকের আয়োজনে রয়েছে দোকানের মতন সমুচা রেসিপি । খুব সহজে এবং তাড়াতাড়ি এই পদটি তৈরি করা যায়। চলুন জেনে নিই, কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন দোকানের মতন সমুচা রেসিপি

উপকরনঃ

ময়দার খামিরঃ ময়দা ১ কাপ, বেকিং পাঊডাড় ১/৪ চা চামচ, লবণ পরিমাণ মতো

প্রণালীঃ

সব একসাথে সামান্য গরম পানি দিয়ে মেখে নিতে হবে।তারপর ২০ মিনিট মিনিট ঢেকে রাখতে হবে।এবার কাই করা ময়দা কয়েক ভাগে ভাগ করে ছোট ছোট রুটি আকারে বেলে নিন। ১ টি রুটির উপর তেল মাখিয়ে ও ময়দা ছিটিয়ে তার উপরে আরেকটি রুটি রাখুন। আবার তেল মাখিয়ে ও ময়দা ছিটিয়ে তার উপরে আরেকটি রুটি রাখুন। এভাবে ৩-৪ টি রুটি একসঙ্গে বড় করে বেলে নিন। এরপর গরম তাওয়ায় রুটি সামান্য গরম করে সাবধানে রুটিগুলো তুলে আলাদা করে রাখুন। সব রুটি গরম করা হলে ছুরি দিয়ে ৮ ইঞ্চি লম্বা ও ৩ ইঞ্চি চওড়া করে কেটে নিন। সামান্য ময়দা পানিতে ঘন করে গুলে নিন। এবার রুটি ত্রিভুজের আকারে তিনভাঁজ করে ভিতরে কিমার পুর দিয়ে দিন। রুটির বাকী অংশে গুলানো ময়দা মাখিয়ে নিন।এ বাড়তি অংশটুকু দিয়ে সমুচার খোলা মুখ চেপে বন্ধ করে দিন নইলে ভাজার সময় খুলে যাবে। ডুবো তেলে ভাল করে ভেজে যে কোন সস বা চাটনীর সঙ্গে পরিবেশন করুন।

বিখ্যাত গরুর মাংসের কালা ভুনা রেসিপি

বিখ্যাত গরুর মাংসের কালা ভুনা রান্নার কথা না বললেই নয়। ঢাকার নানান হোটেলে খাওয়ার অভিজ্ঞতা আছে যাদের তাদের কাছে কালা ভুনা ভালোই পছন্দের। অসম্ভব মজাদার এই খাবারটির জন্ম স্থান চট্টগ্রাম, তাই হয়তো চট্টগ্রামের কালো ভুনা স্বাদে- ঐতিহ্যে অন্য সবার চাইতে আলাদা।
শোনা গেছে সেখানে শুধুমাত্র এই কালা ভুনা রান্নার জন্য স্পেশাল বাবুর্চিও আছে, যাদের ডাক পড়ে বাইরে বিভিন্ন জায়গায়! আর বিয়ে বাড়িতে খাবারের মেনু তো কালো ভুনা ছাড়া কল্পনাই করা যায়না। কালা ভুনার এত সুনাম দেখে নিশ্চয়ই এখন ভাবছেন কিভাবে তা রান্না করা হয়? চিন্তা নেই, আপনাদের জন্যই শেয়ার করছি বিখ্যাত এই গরুর মাংসের রেসিপি। তৈরি করুণ বাড়িতেই বিখ্যাত গরুর মাংসের কালা ভুনা।

উপকরণ

৩ থেকে ৪ কেজি হাড় ছাড়া গরুর মাংস
১/২ চামচ বা মরিচ গুড়া
১ চামচ হলুদ গুড়া
১/২ চামচ জিরা গুড়া
১/২ চামচ ধনিয়া গুড়া
১ চাচম পেঁয়াজ বাটা
২ চামচ রসুন বাটা
১/২ চামচ আদা বাটা
সামান্য গরম মশলা (দারুচিনি, এলাচি)
১/২ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি
কয়েকটা কাঁচা মরিচ
পরিমান মত লবণ
সরিষার তেল

প্রনালী

মাংস কাটার পর ভাল মতো ধুয়ে নিন। তারপর পেঁয়াজ কুঁচি এবং কাঁচা মরিচ বাদে লবণ, তেল ও বাকি সব মশলা দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিতে হবে। মাখানো মাংসটি এবার চুলায় হালকা আঁচ রেখে তুলে দিতে হবে। এবার দুই কাপ পানি দিয়ে আবারো ঢাকনা দিয়ে দিন। মাংস সিদ্ব হতে সময় লাগবে।

আবারো গরম পানি এবং জাল বাড়িয়ে নিন যদি মাংস না নরম হয়ে থাকে। ঝোল শুকিয়ে , মাংস নরম হয়ে যাবার পর রান্নার পাত্রটি সরিয়ে রাখুন। এবার অন্য একটি কড়াই নিয়ে, তাতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুঁচি এবং কাঁচা মরিচ ভাঁজতে থাকুন। সোনালী রং হয়ে আসলো শেই কড়াইতে গরুর মাংস দিয়ে , হালকা আঁচে ভাজতে থাকুন।

ভাজিটি কাল হয়ে যাওয়া পর্যন্ত তা নাড়তে থাকুন, খেয়াল রাখবেন যেন পুড়ে না যায়। এই সময় চুলার পাশেই থাকুন। সবশেষে রান্নাটি নামানোর আগে লবণটি চেখে নিন। এবার পরিবেশন করুন চাটনি অথবা সালাদ সহ।

কেক বানানোর সবচেয়ে সহজ উপায় 

কেক তৈরি করা সবার কাছে একটু ঝামেলারই মনে হয়, তাই অনেকেই সহজ ও ঝামেলামুক্ত রেসিপি খোজেন। তাই আজ বাসায় কেক বানানোর সবচেয়ে সহজ রেসিপিটি থাকছে আপনাদের জন্য।

উপকরণ

ডিম ৩টা
ময়দা ১ কাপ
গুড়া দুধ ১ চা চামচ
বেকিং পাউডার ১/২ চা চামচ
চিনি ৩/৪ কাপ
ভ্যানিলা এসেন্স ১/২ চা চামচ
বাটার/সয়াবিন তেল ১০০ গ্রাম

যেভাবে তৈরি করবেন

শুকনা উপকরন সমুহ একসাথে ভালো করে মেশান। অন্য পাত্রে চিনি ও বাটার ভালো করে বিট করুন। এবার একটা একটা করে ডিম দিন আর ব্লেন্ড করুন, ভ্যানিলা এসেন্স দিন। শুকনো উপকরন দিয়ে সামান্য ব্লেন্ড করুন।

বেকিং ট্রে নিয়ে তাতে বেকিং পেপার বিছিয়ে দিন। সামান্য বাটার ব্রাশ করুন। মিশ্রনটি দিয়ে দিন। ১৮০ ডিগ্রিতে ৩০ মিনিট বেক করুন। তৈরি সহজ ও মজাদার কেক।

আপনার মন্তব্য দিন

শেয়ার