কাচ কলা দিয়ে মজাদার চিপস

আজকের রেসিপি আয়োজনে রয়েছে কাচ কলা দিয়ে মজাদার চিপস। আপনাদের কে দেখাবে কি ভাবে তৈরি করবেন দারুন মজার এই রেসিপিটি । খুব সহজে এবং তাড়াতাড়ি এই পদটি তৈরি করা যায়। চলুন জেনে নিই, কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন কাচ কলা দিয়ে মজাদার চিপস

উপকরণঃ

– ২ টি কাঁচা কলা
– ২ টি আলু
– ২-৩ টেবিল চামচ বাদাম বাটা
– ৩ চা চামচ মরিচ বাটা
– ২ টেবিল চামচ পেঁয়াজ-রসুন বাটা
– আধা চা চামচ আদা বাটা
– লবণ স্বাদ মতো
– ২ টি এলাচ
– ১ খণ্ড দারুচিনি
– তেল পরিমাণ মতো

পদ্ধতিঃ

– আলু ও কলা সেদ্ধ করে নিন পানি দিয়ে। এরপর খোসা ছাড়িয়ে হাতে ভালো করে মেখে নিন অথবা পাটায় বেটে নিন।
– এরপর একটি প্যানে সামান্য তেল দিয়ে এতে পেঁয়াজ-রসুন বাটা, আদা বাটা, দারুচিনি, এলাব ও লবণ দিয়ে নেড়ে নিন। একটু পর দিন মরিচ বাটা ও কাঁচা কলা এবং আলুর মিশ্রন।
– ভালো করে নেড়ে নিন এবং এতে দিন বাদাম বাটা। আঠালো মিশ্রন হলে নামিয়ে নিন চুলা থেকে।
– একটু ঠাণ্ডা হলে অল্প করে নিয়ে হাতে ঘুরিয়ে গোল করে বলের মতো তৈরি করুন বা অন্যান্য কাবাবের মতো চেপটা করে দিন।
– একটি কড়াইয়ে ডুবো তেলে ভাজার জন্য তেল দিন এবং কলার বলের মতো কাবাবগুলো ছেড়ে ভালো করে লালচে করে ভেজে তুলুন।
– যদি চেপটা করে ভাজতে চাপ তাহলে ফ্রাইং প্যানে বেশ খানিকটা তেল দিয়ে কাবাবগুলো দিয়ে দুপাশ লালচে করে ভেজে নিন।
– ব্যস, এবার পরিবেশন করুন বিকেলের নাস্তায় বা খাবারের প্লেটে। এবং মজা নিন কাঁচা কলার তৈরি সুস্বাদু কাবাবের

ঝাল চানাচুর তৈরির সহজ রেসিপি !!

আজকের আয়োজনে রয়েছে দারুণ মজাদার ঝাল চানাচুর রেসিপি । আপনাদের কে দেখাবে কি ভাবে তৈরি করবেন দারুন মজার এই রেসিপিটি । খুব সহজে এবং তাড়াতাড়ি এই পদটি তৈরি করা যায়। চলুন জেনে নিই, কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন ঝাল চানাচুর ।

উপকরণ –

বেসন – ১/২ কেজি,

কালিজিরা – ১ চা চামচ,

খাবার সোডা – ১/২ চা চামচ,

তেল – ১/২ কাপ ( ময়ান),

পানি – ১/২ কাপের একটু বেশি,

বাদাম – ২৫০ গ্রাম,

চিড়া – ২৫০ গ্রাম,

লবন – স্বাদ মত,

বিট লবন – ১ চা চামচ,

টক লবন – ১ চা চামচ,

হলুদ গুঁড়া – ১ চা চামচ,

মরিচ গুঁড়া – ২ চা চামচ,

চাট মসলা – ২ চা চামচ,

তেল – ১ ১/২ লিটার ( ভাজার জন্য)

চানাচুর এর ডিজাইন কামরাঙ্গা, লম্বা ঝুরি, চিকন ঝুরি বুন্দিয়া, বানানোর ডাইস পরিস্কার করে ধুয়ে মুছে শুকিয়ে নিতে হবে।

প্রণালী –

টাটকা বেসন চেলে নিতে হবে। এতে কালিজিরা ও তেল দিয়ে ময়ান করে লবন আর পানি দিয়ে ঘন গোলা করে নিতে হবে। কড়াইয়ে তেল গরম করে চানাচুর ডাইসের উপর বেসনের গোলা রেখে হাতে চেপে চেপে তেলের উপর ফেলতে হবে। ভালো করে ভাজা হয়ে গেলে তুলে কিচেন টাওয়েল এর উপর রাখতে হবে যেন বাড়তি তেল চলে যায়। মোটা ডিজাইনগুলো ভাজা হলে বেসনের গোলায় ৪ চামচ পানি দিয়ে একটু পাতলা করে নিতে হবে। এটা দিয়েই এবারে চিকন ছাচের ঝুরি বানাতে হবে। সবশেষে আবারো অল্প পানি দিয়ে বেসনের গোলাটা পাতলা করে বুন্দিয়া ভেজে নিতে হবে। বেসন পর্ব শেষ হলে ঐ তেলেই বাদাম ভেজে নিবো। তেল খুব গরম করে চিড়া মুচমুচে করে ভেজে তুলে নিবো। এভাবে সব ভাজা হয়ে গেলেই মুল কাজ শেষ। এবার মসলা মেশানোর পালা। বাকি সব মসলাগুলো চানাচুর গরম থাকতে থাকতেই ভালো করে হাতে ডলে মিশিয়ে নিতে হবে। ব্যাস হয়ে গেল মজার ঝাল ঝাল চটপটে চানাচুর। খুব টেস্টি হাতে বানানো

তেতুলের সস তৈরির রেসিপি

আজকের রেসিপি আয়োজনে রয়েছে তেতুলের সস তৈরির রেসিপি ।দেখাবে কি ভাবে তৈরি করবেন দারুন মজার এই রেসিপিটি । খুব সহজে এবং তাড়াতাড়ি এই পদটি তৈরি করা যায়। চলুন জেনে নিই, কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন তেতুলের সস তৈরির তৈরির রেসিপি

উপকরণঃ

১ কাপ তেতুল (বীচি ছাড়া),
১ টি মাঝারি আকারের পেয়াজ,
১ টি কাচা মরিচ, ৫ টি রসুনের কোয়া,
২ টেবিল চামচ ধনে পাতা কুচি,
স্বাদমত লবণ
দেঢ় কাপ পানি

প্রণালীঃ

পেয়াজ, রসুন ও ধনে পাতা কুচির সাথে মরিচ টুকরো বেটে নিতে হবে। সসপ্যানে পানি ঢেলে এতে তেতুল ঢেলে কিছুক্ষণ নাড়তে হবে। এরপর এতে বাটা পেয়াজ-রসুন ঢেলে নাড়তে হবে ৫-১০ মিনিট। থকথকে হয়ে আসলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করতে হবে। ঠান্ডা হয়ে এলে ব্লেন্ড করে সংরক্ষণ করতে হবে। যেকোন পাকৌড়া/ফুচকা/ভাজাপোড়ার সাথে বেশ মজা লাগে এই সস।

আপনার মন্তব্য দিন

শেয়ার